জনিরুল ইসলামঃ কুষ্টিয়া দৌলতপুর প্রতিনিধি।

রাজধানীর বেইলি রোডে আগুনে নিহত সাংবাদিক বৃষ্টি খাতুন ওরফে অভিশ্রুতি শাস্ত্রীর মরদেহের দাবিতে তার নিজ জেলা কুষ্টিয়ায় সর্বস্তরের সাংবাদিকরা মানববন্ধন করেছে।মঙ্গলবার বেলা ১১টায় শহরের ডিসি কোর্টের সামনে কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব (কেপিসি) ও নাগরিক সমাজের আয়োজনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বৃষ্টি খাতুনের লাশ হস্তান্তরের অযৌক্তিক জটিলতার তীব্র নিন্দা জানান বক্তারা। তারা বলেন, প্রয়োজনীয় সবধরনের ডকুমেন্ট দেওয়ার পরও প্রশাসন লাশ হস্তান্তর করেনি। এখন ডিএনএ টেস্টের নামে অযথা বিলম্ব করা হচ্ছে । মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি ও সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, কুষ্টিয়া নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধ আমিরুল ইসলাম, সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান, কেপিপির সহসভাপতি ও আরটিভির স্টাফ রিপোর্টার শেখ হাসান বেলাল, এন টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ও কে পিসির নির্বাহী সদস্য সাবিনা ইয়াসমিন শ্যামলী, কেপিসির দপ্তর সম্পাদক এস এম ওয়ালিদুজ্জামান শুভ ও কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রচার সম্পাদক চাঁদ আলী প্রমুখ। মানববন্ধনে রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব বলেন, বৃষ্টি খাতুনের লাশ নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হচ্ছে। এটার জন্য আমাদের খুব কষ্ট হচ্ছে। তার এনআইডি কার্ড, জন্মনিবন্ধন ও স্কুল সার্টিফিকেট রয়েছে । এ ছাড়া কুষ্টিয়ার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও তাকে বৃষ্টি খাতুন হিসেবেই সনাক্ত করেছেন। এরপরও আর কোনো প্রমাণের দরকার হয় না। তাই আমরা দ্রুত বৃষ্টির লাশ তার বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তরের দাবি জানাই। প্রসঙ্গত, ২৯ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর বেইলি রোডে একটি বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডে ৪৬ জন নিহত হন। এরমধ্যে রয়েছেন সাংবাদিক অভিশ্রুতি শাস্ত্রী হিসেবে পরিচিত বৃষ্টি খাতুন। নিহত সবার লাশ হস্তান্তর সম্পন্ন হলেও ধর্মীয় জটিলতায় বৃষ্টির লাশ এখনো তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা সম্ভব হয়নি। এ মানববন্ধনে কুষ্টিয়ার সর্বস্তরের সাংবাদিক প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা এই মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

টপ টেন বাজার লিমিটেড এর পন্য এখন ঘরে ঘরে”

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ