ডেক্স রিপোর্টঃ

স্ত্রীর ফোন কলে শশুরবাড়ী গিয়ে রহস্যজনক মৃত্যু। লাশ হয়ে ফিরলো শামীম সরকার

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ৯নং হরিরামপুর ইউনিয়নের ধুন্দিয়া (মধ্যপাড়া) গ্রামের মোঃ আঃ ওয়ারেচ সরকার এর ছেলে মোঃ শামীম সরকার প্রায় এক বছর পূর্বে  গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার গোডাউন বাজার খামার মামুদপুর (পূর্ব পাড়া) গ্রামের মৃত আঃ মালেকের মেয়ে মোছাঃ ফাতেমা বেগম”এর সঙ্গে প্রেম-ভালোবাসা করিয়া মুসলিম শরিয়ত মোতাবেক কাবিননামা মুলে বিবাহ করে। তবে মোছাঃ ফাতেমা বেগম ঈদ-উল আযহা/২৩ এর পূর্ব থেকেই তার বাবার বাড়ী খামার মামুদপুর (পূর্ব পাড়া) গ্রামে অবস্থান করে। গত ০৩/০৭/২০২৩ রবিবার শামীমের স্ত্রী ফাতেমা বেগম  শামীম সরকার কে মোবাইল ফোন কলের মাধম্যে তার বাবার বাড়ী খামার মামুদপুর (পূর্ব পাড়া) গ্রামে যেতে বলে, মোঃ শামীম সরকার ঐ দিনেই সন্ধা আনুমানিক ০৭ ঘটিকায় তার শশুর বাড়ী খামার মামুদপুর (পূর্ব পাড়া) গ্রামে যায়। গত ০৩/০৭/২০২৩ সোমবার শাশীমের চাচা শশুরের নির্মানাধীন বিল্ডিং বাড়ীর দক্ষির-পশ্চিম পার্শ্বে জাম গাছের কান্ডের সাথে মাটির সন্নিকট রহস্যজনক ভাবে শামীমের ঝুলন্ত লাশ দেখা যায়। অতঃপর পলাশবাড়ী হরিণাবাড়ী পুলিশ তদন্তকেন্দ্র থেকে পুলিশ এসে জাম গাছ থেকে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৃত শামীমের লাশ গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে পাঠান। ময়না তদন্ত অন্তে পুলিশ শামীমের লাশ পরিবার কে হস্তান্তর করেন পুলিশ। ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসার পর বোঝা যাবে এটা আত্ব্যহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যা

তবে শামীমের পরিবারের ধারনা এটা পরিকল্পিত হত্যা।

 

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ