আরাফাত হোসেন স্টাফঃ রিপোর্টার বগুড়া।

বগুড়ার নন্দীগ্রামে ৪শ’ পিস নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য ‘টাপেন্টা’ ট্যাবলেটসহ মমিন হোসেন (৩২) নামের মাদক কারবারিকে আটক করা হয়েছে। সে উপজেলার থালতা-মাঝগ্রাম ইউনিয়নের জামালপুর পূর্বপাড়া এলাকার সাত্তার আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের অভিযানে ওই মাদক কারবারিকে আটকের পর রাতেই তার বিরুদ্ধে থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

  1. নন্দীগ্রাম থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন জানান, আটক মমিন হোসেন দীর্ঘদিন ধরে মাদকের কারবার করে। নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য টাপেন্টা ট্যাবলেট বিভিন্ন এলাকা থেকে সংগ্রহ করে নিজেই মাদকাসক্তদের কাছে বিক্রয় করতো। টাপেন্টা বিক্রয়ের জন্য বাড়িতে রাখার গোপন তথ্যের ভিত্তিতে কুমিড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের একটি টিম জামালপুর পূর্বপাড়া এলাকায় ওই মাদক কারবারির বসতবাড়িতে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টেরপেয়ে মাদক কারবারি পালানোর চেষ্টা করে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে আটক করা হয়। ওই ব্যক্তি তার শয়ন ঘরের খাটের নিচে রাখা মাটির পাতিলের মধ্যে থেকে নিজ হাতে একটি ব্যাগ বের করে। সেই ব্যাগ থেকে নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য টাপেন্টা ট্যাবলেট বের করে দেয়। প্রতি পিস ১০০ মিলিগ্রাম করে ১০টির ৪০পাতা টাপেন্টা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। আটককৃত মমিন হোসেনের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেছেন কুমিড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক জাহিদুল ইসলাম।
পোস্টটি শেয়ার করুনঃ