নিজস্ব প্রতিনিধি, তানভির রহমান: বগুড়ার নন্দীগ্রাম বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত নিবন্ধন বিহীন নিউ মডেল ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় আফছানা মিমি (১৮) নামে এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।প্রাপ্ত তথ্য জানা যায়, নাটোরের সিংড়া উপজেলার রামানন্দ খাজুরিয়া ইউনিয়নের আনোলিয়া কৈগ্রামের আরিফুল ইসলামের মেয়ে আফছানা মিমি গত দুই বছর পূর্বে সিংড়া উপজেলার সুকাশ ইউনিয়নের ছিলামপুর পুর গ্রামে আয়নাল হোসেনের ছেলে আবু শামিমের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের দুই বছরের মাথায় আফছানা মিমি গর্ভবর্তী হয়। আফছানা মিমির প্রসব বেদনা উঠলে পেটে ব্যাথা নিয়ে ২৪ মে শনিবার সকাল ৬টায় নন্দীগ্রাম নিউ মডেল ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয় আফছানা মিমিকে। ৩ঘন্টা ভর্তি থাকার পর সকাল ৯টায় আফছানা মিমিকে সিজার করেন পি,কে শাহী (এমবিবিএস) নামে একজন ভাড়াটে ডাক্তার। সিজারে আফছানা একটি ফুটফুটে মেয়ে সন্তান জন্ম দেন। নবজাতক সুস্থ থাকলেও ধীরে ধীরে প্রসূতি আফছানার বিøডিং শুরু হয়। এক পর্যায়ে সে জটিল অসুস্থ হয়ে পড়লে মডেল ক্লিনিক নিরুপায় হয়ে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। আফছানার মা প্রসূতি আফছানাকে নিয়ে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করান। ভর্তির কিছুক্ষণ পরেই মারা যায় আফছানা।

এ ব্যাপারে নিহত আফছানার ভাসুর বলেন, ডাক্তারের অবহেলা এবং ভুল চিকিৎসার কারণে আমার ভাইয়ের বউ এর মৃত্যু হয়েছে। নন্দীগ্রাম নিউ মডেল ক্লিনিকের মালিক পক্ষ গৌতম কুমার বলেন, আফছানা মিমি মৃত্যু বরণ করেছে এই বিষয়টি সত্য। তবে তাদের পরিবারের সাথে মিমাংসা করার চেষ্টা চলছে।অপরদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নন্দীগ্রাম নিউ মডেল ক্লিনিকে প্রসূতি মারা যাবার বিষয়টি শুনেছি। এ বিষয়ে যদি কেউ অভিযোগ করে তাহলে ওই ক্লিনিকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ