মোঃ এহছান এলাহী  জলঢাকা প্রতিনিধি :-

 

৬ষ্ঠ ধাপে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অনলাইনে মনোনয়ন ফরম দাখিল করে কর্মী সমর্থকদের নিয়ে বনাঢ়্য আনন্দ র‌্যালী করেছে সাবেক উপজেলা আওয়ামিলীগ সভাপতি আনছার আলী মিন্টু। ২১শে এপ্রিল রবিবার শেষ বিকালে এলএসডি গোডাউন সংলগ্ন মিল চাতাল থেকে একটি বনাঢ়্য র‌্যালী বের হয় এবং র‌্যালীটি পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় মিলচাতালে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। এ সময় সাবেক উপজেলা আওয়ামিলীগ সভাপতি আনছার আলী মিন্টুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন,সাবেক উপজেলা আওয়ামিলীগের বইন বিষয়ক সম্পাদক মহসিন আলী, সহ সংগঠনটি সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ, সংগঠনটি সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সহ-সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গাফফার, সৈনিকলীগ সভাপতি ও বালাগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম লিপন, সাবেক পৌর আওয়ামিলীগের গীতা সম্পাদক বাবু উৎপল কুমার রায়, যুবলীগ নেতা শাহান কবীর শাহিনুর,ডাউয়াবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক লেবু, শৌলমারী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রানজিৎ কুমার পলাশ, কেন্দ্রীয় দূর্গাপুজা সভাপতি বাবু নির্মানন্দু রায়, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জয় রায় রঞ্জু, আইযুব আলী প্রমুখ। উক্ত মতবিনিময় সভায় দলিয় নেতাকর্মীদের মসর্থনে এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে সাবেক উপজেলা আওয়ামিলীগ সভাপতি আনছার আলী মিন্টু বলেন, জনগনের সমর্থন যোগ্য হয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করছি। এ সময় তিনি জলঢাকার জনগনেই আমার শক্তি উল্লেখ্য করে বলেন, জলঢাকার বপামর জনতা যদি আমাকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত করেন তবে আমি উপজেলা পরিষদ সহ জলঢাকার প্রতিটি সেক্টর থেকে দুর্নীতি, ঘুষ বানিজ্য ও সন্ত্রাস মুক্ত করবো। বিশেষ করে উপজেলা পরিষদ দুর্নীতির অভয়নগরে পরিনত হয়েছে। এই দুর্নীতির জন্য জলঢাকার মানুষ আমরা উন্নয়ন থেকে অনেকটা পিছিয়ে আছি। প্রার্থী মিন্টু মিয়া বলেন, আমাকে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন আমি জলঢাকাকে একটি আধুনিক ও স্মার্ট জলঢাকা উপহার দিবো।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ