পৈতৃক সম্পত্তির ওপর বসতবাড়ি স্থাপনে বাধাগোবিন্দগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ১০ নং রাখাল বুরুজ ইউনিয়নের উত্তর ছয়ঘড়িয়া চাঁদপুর গ্রামের মোঃ পানাউল্যা শেখ দীর্ঘদিন যাবত জীবিকা নির্বাহের জন্য নির্বাহ ঢাকায় ছিলেন। প্রায় ১৬ বছর পর তার পৈতৃক সম্পত্তিতে এসে তার স্থাপনকৃত গাচ কর্তন করেন অতঃপর কর্তনকৃত গাছের কাঠ দ্বারা একটি টিনসেড বাড়ি নির্মাণ করার জন্য প্রস্তুতি নেন।
এমত অবস্থায় একই গ্রামের মোঃ সিরাজুল ইসলামের পুত্র মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, মৃত আয়েন উদ্দিনের পুত্র মোঃ সাহারুল ইসলাম, মৃত ভিক্ষু মিয়ার পুত্র মোঃ আছাব আলী, মোঃ সাজু মিয়া, মোঃ জাহিদুল ইসলাম (ঠান্ডু) উভয়ের পিতা মোঃ বয়েজ উদ্দিন, সিরাজুল ইসলাম এর স্ত্রী মোছাঃ আবেদা বেগম, মোঃ আছাব আলীর স্ত্রী মোছাঃ আপেল বেগম, অত্যন্ত ক্ষিপ্ত হয়ে জনসমক্ষে উক্ত টিন সেট বাড়ি নির্মাণে প্রয়োগ করেন। দুই সপ্তাহ আগে ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় জনগণের মুখে শোনা যায়, উক্ত সম্পত্তির মালিক দীর্ঘদিন যাবত গ্রামে না থাকায় তার জমা জমি উপরে লিখিত ব্যক্তিগণ ভোগ দখল করে খাইয়া আসিতেছে,
এ বিষয় নিয়ে অত্র ইউনিয়নে বেশ কয়েকবার উঠান বৈঠক বা বিচার সালিশ হয়েছে, তবে সালিশে বিরোধীপক্ষ জমির কোন দলিল বা কাগজপত্র দেখাতে শক্ষম হয়নি। কিন্তু সঠিক মালিকের পৈত্রিক সম্পত্তিতে বসতবাড়ি স্থাপনে বেআইনিভাবে রীতিমতো বাধা প্রয়োগ, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ মারপিট ও খুন রকমের হুমকি ধামকি প্রয়োগ করে আসিতেছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবস্থান করছেন মোঃ পানাউল্যা শেখ ও তার পরিবারবর্গ ।

এমত অবস্থায় পৈত্রিক সম্পত্তির সঠিক মালিক, তার পরিবারবর্গের নিরাপত্তা ও সঠিক তদন্ত করে সম্পত্তির আসল মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য বাদী হয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন মোঃ পানাউল্যা শেখের জামাই মোঃ দেলবার রহমান।

নিম্নে তফসিল বিবরণ দেয়া হলো-
জেলাঃ গাইবান্ধা, থানাঃ গোবিন্দগঞ্জ, মৌজা- চাঁদপুর, জেএল নং ২৯৮, সিএস খং নং ৭২,দাগ নং সাবেক-২০৩, জমির পরিমাণ – ০৯ শতক নালিশী।

পোস্টটি শেয়ার করুনঃ